সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ আর নেই

সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ আর নেই

রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও স্পীকারের শোক

উত্তরদক্ষিণ অনলাইন ০২ এপ্রিল ২০২০ । ১১:২০

সাবেক ভূমিমন্ত্রী, পাবনা-৪ আসনের (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) সংসদ সদস্য, মুক্তিযোদ্ধা ও ভাষাসৈনিক শামসুর রহমান শরীফ ডিলু আর নেই। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদ মৃত্যুবরণ করেন। আওয়ামী লীগের পাবনা সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খবর বার্তাসংস্থা ইউএনবির। শামসুর রহমান ক্যান্সার, কিডনি সমস্যাসহ বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন। বেশ কিছুদিন ধরে তিনি ওই হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন বলে জানা গেছে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ভাষাসৈনিক ও মুক্তিযোদ্ধা ১৯৪০ সালের ১০ মার্চ পাবনা সদর উপজেলার হেমায়েতপুর ইউনিয়নের চর শানিকদিয়ার মাতুলালয়ে মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম মরহুম লুৎফর রহমান। তার পৈতৃক নিবাস ঈশ্বরদী উপজেলার লক্ষীকুন্ডা ইউনিয়নে। শামসুর রহমান শরীফ ডিলু শৈশবে ঈশ্বরদীর লক্ষীকুন্ডা ইউনিয়নে প্রাইমারি স্কুল ও পাকুড়িয়া মিলড ইংলিশ স্কুলে পড়াশোনা করে পাবনা জেলা স্কুলে ভর্তি হন। পাবনা জেলা স্কুল থেকে ১৯৫৭ সালে ম্যাট্রিক পাস করেন। ১৯৬০ সালে ইন্টারমিডিয়েট এবং ১৯৬২ সালে তিনি গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন।

পাবনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি শামসুর রহমান শরীফ ডিলু ১৯৯৬, ২০০১, ২০০৮, ২০১৪ ও সর্বশেষ ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পরপর পাঁচবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হলে ২০১৪ সালের ১২ জানুয়ারি বাংলাদেশ সরকারের ভূমি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার ছেলে ও পাঁচ মেয়ে রেখে গেছেন।

রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও স্পীকারের শোক

সাবেক ভূমিমন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামসুর রহমান শরীফের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মুক্তিযোদ্ধা ও বর্ষিয়ান এই রাজনীতিবিদের মৃত্যুতে জাতীয় সংসদের স্পিকার, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকসহ বিশিষ্ট রাজনীতিবিদরাও শোক ও তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে পৃথক বিবৃতি দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) ভোরে তার মৃত্যুর পর এক শোক বার্তায় রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘তার মৃত্যুতে দেশ একজন দক্ষ সংগঠক ও অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদকে হারালো। শামসুর রহমান শরীফের মৃত্যু দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।’ রাষ্ট্রপ্রধান মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

অপর এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৫ম বারের মতো নির্বাচিত সংসদ সদস্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসুর রহমান শরীফ আজীবন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক হিসেবে দেশ ও জাতির সেবা করে গেছেন। ‘১৯৮১ সালে ৬ বছরের নির্বাসন শেষে দেশে ফিরে আসার পর থেকে আমি শামসুর রহমান শরীফকে দেখেছি তিনি বৃহত্তর পাবনা অঞ্চলে আওয়ামী লীগের ঝান্ডা উড্ডীন রেখেছেন। সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলন-সংগ্রামে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এজন্য তাকে ও তার পরিবারের সদস্যদের অমানুষিক নির্যাতন ও জুলুমের শিকার হতে হয়েছে। কিন্তু তিনি কখনই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে, আওয়ামী লীগের আদর্শ থেকে বিচ্যুত হননি,’ শেখ হাসিনা স্মরণ করেন। প্রধানমন্ত্রী মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

অপরদিকে, জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী একাদশ জাতীয় সংসদের সংসদ সদস্য, সাবেক ভূমিমন্ত্রী, ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শামসুর রহমান শরীফের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এছাড়াও শামসুর রহমান শরীফ এমপির মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মোঃ ফজলে রাব্বী মিয়া এবং চিফ হুইপ নূর-ই- আলম চৌধুরী।

শামসুর রহমান শরীফ ডিলু’র মৃত্যুতে অন্যদের মধ্যে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এবং আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়কমন্ত্রী আনিসুল হক। তারাও মরহুমের অবদানের কথা কৃতজ্ঞতাচিত্তে স্মরণ করে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

Md Enamul

Leave a Reply