এবার বয়স জানতে চাইবে ইনস্টাগ্রাম

এবার বয়স জানতে চাইবে ইনস্টাগ্রাম

উত্তরদক্ষিণ মুদ্রতি সংস্করন । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯ । প্রকাশ ০০:০১। আপডেট ১১:২৮

এখন থেকে সাইন-আপ করার সময় ইনস্টাগ্রামকে জন্ম তারিখ ও সাল জানাতে হবে ব্যবহারকারীদের। ১৩ বছরের কম বয়সীরা যাতে অবাধে প্ল্যাটফর্মটিতে প্রবেশ না করতে পারে, সে লক্ষ্যেই নেওয়া এমন উদ্যোগ। তবে, নিয়মটি শুধু নতুন ব্যবহারকারীদের জন্য প্রযোজ্য। যারা আগে থেকেই ইনস্টাগ্রাম প্ল্যাটফর্মে নিবন্ধিত, তাদেরকে বয়স সম্পর্কিত কোনো তথ্য নতুন করে আর জিজ্ঞাসা করা হবে না। বয়সের ভিত্তিতে কমবয়সী নতুন ব্যবহারকারীদেরকে সেটিংস ও নতুন গোপনতা নিয়ন্ত্রণ ফিচার সম্পর্কে ধারণা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির,- খবর প্রযুক্তিবিষয়ক সাইটে টেকক্রাঞ্চের। মেসেজ পাঠানো, গ্রুপে যোগ করা এবং স্টোরিতে উত্তর দেওয়া সম্পর্কিত নতুন আরেকটি অপশন যোগ করা হচ্ছে সেবাটিতে। নতুন ওই অপশনের বদৌলতে ব্যবহারকারীরা যাদের অনুসরণ করছেন, শুধু তারাই মেসেজ পাঠাতে, গ্রুপে যোগ করতে এবং স্টোরিতে উত্তর দিতে পারবেন। এদিকে, টেকক্রাঞ্চের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্যবহারকারীর জন্ম তারিখ ও সাল সম্পর্কিত তথ্য গোপন রাখবে ইনস্টাগ্রাম। তবে, ফেইসবুকের সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট জুড়ে নিলে ব্যবহারকারীর তথ্যগুলো ফেইসবুক প্রোফাইলের তথ্যের সঙ্গে মিলিয়ে দেখা হবে। ফেসবুক, স্ন্যাপচ্যাট ও টিকটকের মতো সেবাগুলোতে বেশ আগে থেকেই বয়স সম্পর্কিত বাধ্যবাধকতাগুলো থাকলেও ইনস্টাগ্রামে এটি ছিল না। ফটো শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মটি নিজেদের প্রতিষ্ঠার নয় বছর পর এই নিয়ম আনলো। প্রতিবেদনে মন্তব্য করা হয়েছে, জরিমানার ভয়েই এতোদিন এ কাজে হাত দেয়নি সেবাটি। ‘চাইল্ড অনলাইন প্রাইভেসি প্রটেকশন অ্যাক্ট’ নামের এক আইনে ১৩ বছরের কম বয়সী শিশুদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া আছে। কোনো সেবা নিয়ম ভাঙলে ৪০ হাজার ডলার করে জরিমানা ধরারও বিধান রাখা হয়েছে। অবশ্য, ইনস্টাগ্রাম বলছে ভিন্ন কথা। কেন আরও আগেই নিয়মটি করা হয়নি, সে প্রসঙ্গে এক ইনস্টাগ্রাম মুখপাত্র বলেছেন, ‘আমরা চেয়েছিলাম ইনস্টাগ্রাম এমন একটি জায়গায় পরিণত হোক যেখানে পরিচিতর ব্যাপারটি মাথায় না নিয়ে সবাই নিজ মতামত পুরোপুরিভাবে প্রকাশ করতে পারে।’ আবার নতুন নিয়ম প্রসঙ্গে এক নোটে ইনস্টাগ্রাম বলেছে, ‘এ ধরনের তথ্য জিজ্ঞাসা করার কারণে ১৩ বছরের কম বয়সীরা সেবাটিতে যোগ দেওয়া থেকে বিরত থাকবে। আমরাও অল্প বয়সী ব্যবহারকারীদের আরও নিরাপদ রাখতে পারব এবং আরও বয়স উপযোগী অভিজ্ঞতা নিয়ে হাজির হতে পারব।’ পুরো বিষয়টি নিয়ে টেকক্রাঞ্চ মন্তব্য করেছে, ‘বয়স চিহ্নিত করার নিয়মটি এনে ভালো একটি পদক্ষেপ নিয়েছে ইনস্টাগ্রাম। নতুন ব্যবহারকারীরা আদৌ সত্যি তথ্য দিচ্ছে কি না সেটি নিশ্চিত করার জন্য আরও সুনির্দিষ্ট উপায় বের করার ব্যাপারটিও মাথায় রাখতে হবে সেবাটির। কারণ, অ্যাপটি অল্প বয়সী ব্যবহারকারীদেরকে বেশি আকৃষ্ট করে এবং তাদের স্পর্শকাতর ডেটাগুলোও সেবাটির হাতে আসে। এমন একটি অবস্থায় সোশাল মিডিয়ায় অন্যান্যদের সঙ্গে তাল মিলানোর বদলে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দৌঁড়ে নেতৃত্ব দেওয়া উচিত সেবাটির।’ নিজেদের প্রতিবেদনে টেকক্রাঞ্চ আরও বলেছে, বর্তমানে ইনস্টাগ্রামের সদস্য সংখ্যা শত কোটি যারা নতুন নিয়মটির আওতায় পড়বেন না। এতে করে যেন ওই ব্যবহারকারীদের মধ্যে থাকা কমবয়সী শিশুদেরকে দেখেও না দেখার ভান করছে প্রতিষ্ঠানটি।

enghillol

Leave a Reply