জুম অ্যাপ নিয়ে এলো নতুন সব ফিচার

জুম অ্যাপ নিয়ে এলো নতুন সব ফিচার

উত্তরদক্ষিণ । শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২ । আপডেট ০৯:৫০

করোনা পরিস্থিতির কারণে সারা পৃথিবীর মানুষ মুখোমুখি হয়েছে নানা রকমের নতুন নতুন পরিস্থিতির। তার মাঝে লকডাউন অন্যতম। আর লকডাউন চলাকালীন সময়ে ওয়ার্ক ফ্রম হোম ছিল একমাত্র ভরসা। সেসময় সবকিছু থমকে গেলেও লকডাউনে ঘরে বসেই অফিস, মিটিং সব সেরে নেওয়া গেছে। এসময়ে অনলাইন মিটিংয়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপ হয়ে দাঁড়ায় জুম।

২০১১ সালে উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়িক ক্রেতাদের জন্য তৈরি হয়েছিল এই অ্যাপ। তবে খুব কম মানুষই ব্যবহার করেছেন এই অ্যাপ। করোনার সময় অনলাইন ক্লাস শুরু হওয়ার পরই বিশ্বে পরিচিত হলো জুম অ্যাপ। বর্তমানে বিশ্বের প্রায় সব দেশেই অনলাইন মিটিংয়ের জন্য ব্যবহার হচ্ছে জুম। স্কুল, কলেজ থেকে শুরু করে অফিস কিংবা ব্যবসায়িক আলোচনা দূর দুরান্ত থেকে ভরসা এই অ্যাপ। এ কারণেই প্রতিনিয়ৎ ব্যবহারকারীদের জন্য ঢেলে সজানো হচ্ছে জুম।

ব্যবহারকারীদের মিটিংয়ের একঘেয়েমি কাটাতে সম্প্রতি যুক্ত হয়েছে একাধিক নতুন ফিচার। এছাড়াও কিছুদিন আগে মিটিংয়ে থেকে ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তনের সুবিধা এনেছে অ্যাপটি। অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে কল এন্ডে এনেছে নতুন সুবিধা। চলুন দেখে নেওয়া যাক অ্যাপের নতুন ফিচারগুলো-

মাইরো
এটি একটি অনলাইন হোয়াইট বোর্ড। এর মাধ্যমে জুম কলের প্রতিটি অংশগ্রহণকারীদের কোলাবোরেটিভ ওয়ার্কস্পেস দেওয়া হয়। এর উদ্দেশ্য হলো প্রতিটি অংশগ্রহণকারী যেন সেই কলে অংশগ্রহণ করতে পারেন, কোক্রিয়েট করতে পারেন এবং রিয়েল টাইম আইডিয়া ক্যাপচার করতে পারেন। এছাড়াও এই ফিচারের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের টুলসের সাহায্য পাওয়া যাবে।

কোড অ্যাপ ফর জুম-
এই ফিচারের মাধ্যমে জুম কলের প্রতিটি অংশগ্রহণকারীদের বলার সুযোগ করে দেওয়া হবে। এজন্য তাদের আলাদা করে আর কোনো ট্যাব ওপেন করতে হবে না। এছাড়াও এই ফিচারের মাধ্যমে নিয়ে আসা হয়েছে একটি নতুন কোড। এর মাধ্যমে প্রতিটি অংশগ্রহণকারী একে অপরের সম্পর্কে কিছু জানলে তা বাকিদের জানাতে পারবেন।

টুইন ফর জুম-
এটি জুমের অল ইন ওয়ান রুম ম্যানেজমেন্ট ফিচার। এটির মাধ্যমে যে কোনো মিটিংয়ের হোস্ট ক্রিয়েট করতে পারেন রুম বেসড মিটিং। এর মাধ্যমে অন কাস্টম রুলস, রোটেট বিটুইন টাইমড, ব্যাক টু ব্যাক ব্রেকআউট, চ্যাট অ্যাক্রস রুম ইত্যাদির সুবিধা পেতে পারেন ব্যবহারকারী।

ইউডি/সুস্মিত

Md Enamul

Leave a Reply